1. jubayer.jay@gmail.com : jubayer Ahmed : jubayer Ahmed
  2. admin@sylhetmail24.com : jubayer :
  3. shahabuddin1234@gmail.com : shuhebkhan :
  4. unoskhanrukon@gmail.com : unoskhan :
মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন

বাফুফের গুণগত পরিবর্তন আনতে চাইঃ ইমরুল হাসান

  • প্রকাশিত হয়েছে: রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৮ বার পড়া হয়েছে

মাঠের বাইরে থেকে কথা বলা সহজ, কিন্তু এতে সমস্যার সমাধান হবে না। পরিবর্তন করতে হলে প্রয়োজন, সিস্টেমের ভেতরে থেকে কাজ করা। আর সে লক্ষ্যেই এবার বাফুফে নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে প্রার্থী হয়েছেন বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান। জানিয়েছেন, দেশের বয়সভিত্তিক এবং সার্ভিসেস দলগুলোকে নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা আছে তার। নির্বাচনের জয়-পরাজয় নিয়ে না ভেবে, অভিজ্ঞতা অর্জনকেই বড় করে দেখছেন এ সংগঠক।

বসুন্ধরা কিংস, বাংলাদেশ ফুটবলের নতুন ধারা। পেশাদারিত্ব, হেভিওয়েট কোচিং প্যানেল এবং মানসম্পন্ন দেশি-বিদেশি ফুটবলারের নৈপুণ্যে দুই মৌসুমেই জায়গা করে নিয়েছে ভক্ত-সমর্থকদের হৃদয়ে। আর এসব কিছুর পেছনে রয়েছে একজন মানুষের ফুটবলের প্রতি অগাধ ভালোবাসা। তিনি ইমরুল হাসান।

মাঠের খেলায় প্রমাণিত হয়েছে তার কারিশমা। এবার টেবিলের লড়াইয়ে । আসন্ন ফুটবল ফেডারেশন নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদের জন্য মনোনয়ন নিয়েছেন কিংস সভাপতি। ফুটবল বাঁচানোর নামে বাইরে থেকে সমালোচনা না করে, সিস্টেমের অংশ হয়ে কাজ করতে চান তিনি।

ইমরুল হাসান বলেন, ‘বাইরে থেকে কথা বলা অনেক সহজ, কিন্তু আমরা ভেতরে ঢুকতে চাই। সমস্যা সমাধানে সিস্টেমের অংশ হয়ে কাজ করতে চাই। এই মুহূর্তে বসুন্ধরা বাংলাদেশ ফুটবলের সবচেয়ে বড় স্টেকহোল্ডার। আমাদের বেশ কিছু পরিকল্পনা আছে। নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রথম ধাপ।’

নানা সমালোচনা থাকার পরও কাজী সালাউদ্দিনের প্যানেলকেই বেছে নিয়েছেন তিনি। সুযোগ পেলে বয়সভিত্তিক এবং সার্ভিসেস দলগুলোকে মূলধারায় নিয়মিত করতে চান তিনি।

ইমরুল হাসান আরো বলেন, ‘আমি নির্বাচনের রাজনীতিতে একেবারেই নতুন। তাই স্বতন্ত্র অবস্থায় অংশ নেয়া সমীচীন মনে করিনি। সালাউদ্দিন প্যানেল অনেক বেশি অভিজ্ঞ, তাই তাদের সঙ্গে কাজ করতে চেয়েছি। তবে, আমার কিছু আলাদা এবং নির্দিষ্ট পরিকল্পনা আছে। জাতীয় দলের বাইরে কারো বয়সভিত্তিক দল নেই, জেলা লিগগুলোর অবস্থাও করুণ। আমি এগুলোকে নিয়মিত করতে চাই। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, ইউনিভার্সিটির সার্ভিসেস দলগুলোকে ফুটবলের মূলধারায় নিয়ে আসতে চাই।

বিষয়টা যখন নির্বাচন, হার জিতের প্রশ্ন থাকবেই। তবে কিংস সভাপতির কাছে তার চেয়েও বড় ১৩৯ ডেলিগেটের সান্নিধ্য পাওয়ার অভিজ্ঞতা।

তিনি আরো বলেন, ‘নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে আমরা একেবারেই চিন্তিত নই। জয়-পরাজয় যাই হোক আমরা তো আর চলে যাচ্ছি না। ফুটবলের সঙ্গেই থাকবো। বরং নির্বাচনের মাধ্যমে আমি বিভিন্ন জেলার প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলতে পারছি, ফুটবল নিয়ে তাদের ধ্যান-ধারণা জানতে পারছি। এই অভিজ্ঞতা আমাকে সামনের দিনে অনেক কাজে সাহায্য করবে।’

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ