1. jubayer.jay@gmail.com : jubayer Ahmed : jubayer Ahmed
  2. admin@sylhetmail24.com : jubayer :
  3. shahabuddin1234@gmail.com : shuhebkhan :
  4. unoskhanrukon@gmail.com : unoskhan :
বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন

চুল দাড়ি ফেলা তারেককে কীভাবে চিনল র‌্যাব?

  • প্রকাশিত হয়েছে: মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গৃহবধূকে গণধর্ষণের মামলার দ্বিতীয় আসামি ছাত্রলীগকর্মী তারেকুল ইসলাম তারেক গ্রেফতার এড়াতে চুল-দাড়ি কেটে ছদ্মবেশ ধরেছিলেন। তার মুখভর্তি দেড়-দুই ইঞ্চি পরিমাণ লম্বা দাড়ি ছিল, মাথায় ছিল লম্বা চুল।

র‌্যাবের হাতে গ্রেফতারের পর দেখা যায় তারেকের মুখে দাড়ি নেই। দুদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানোর পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জের দিরাই থেকে তারেককে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার এড়াতে নিজের চেহারায় পরিবর্তন এনেছিলেন তিনি। ধরেন ছদ্মবেশ। তার মুখে দাড়ি, মাথায় চুল না থাকায় অবাক হন র‌্যাবের কর্মকর্তারা।

র‌্যাব সুত্র জানায়, তারেকের মুখে লম্বা দাড়ি, মাথায় চুল থাকলেও গ্রেফতার এড়াতে চুল-দাড়ি কেটে ফেলেন। তাকে চিহ্নিত করতে কষ্ট হয় তাদের। তবে ছদ্মবেশ ধরেও রক্ষা পাননি তারেক।

তারেক সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার উমেদনগরের রফিকুল ইসলামের ছেলে। সে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণী গণধর্ষণ মামলার দুই নম্বর আসামি।

প্রসঙ্গত গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে আটকে রাখে দুজন।

এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরান থানায় মামলা করেছেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও তিনজনকে আসামি করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ
DMCA.com Protection Status