1. jubayer.jay@gmail.com : jubayer Ahmed : jubayer Ahmed
  2. admin@sylhetmail24.com : jubayer :
  3. shahabuddin1234@gmail.com : shuhebkhan :
  4. unoskhanrukon@gmail.com : unoskhan :
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৩০ পূর্বাহ্ন
এক নজরে:

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতায় রয়েছেন ৪ বাংলাদেশী

  • প্রকাশিত হয়েছে: সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৮ বার পড়া হয়েছে

আজ(৩ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের আলোচিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। দেশটির ৫০টি অঙ্গরাজ্যের ৪২টিতে রিপাবলিকান বা ডেমোক্র্যাট প্রার্থী সুস্পষ্টভাবে এগিয়ে রয়েছেন। তবে আটটি রাজ্যের ভোটাররা কোনো প্রার্থীর দিকেই ঝুলে নেই। এসব রাজ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এ রাজ্যগুলোর দিকেই তাকিয়ে আছেন সবাই।

১২৫টি ইলেক্টোরাল ভোটের অধিকারী আটটি রাজ্যই মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভাগ্য নির্ধারণ করে থাকে। এ পর্যন্ত ১০ পয়েন্টে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছে বাইডেনী নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পাশাপাশি বিভিন্ন পদেও নির্বাচন হচ্ছে। এতে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত চার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাদের নিয়ে রাজ্যগুলোর সর্বত্র আলোচনা চলছে। মূলধারার রাজনৈতিক দল ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকানের টিকিটে জনপ্রতিনিধি হিসেবে তাদের জয়ের সম্ভাবনা বেশি।

তাদের নিয়ে গর্বিত বাংলাদেশি কমিউনিটি। তারা হলেন- টেক্সাসের অস্টিন থেকে কংগ্রেসে বাংলাদেশি প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী ডেমোক্রেটিক প্রার্থী ডোনা ইমাম, জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের স্টেট সিনেটর শেখ রহমান চন্দন, নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ আবুল বি. খান ও পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের অডিটর জেনারেল প্রার্থী ড. নীনা আহমেদ।

ডোনা ইমাম : হঠাৎ ঝলসে ওঠার মতো ঘটনার জন্ম দিয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান ডোনা ইমাম। ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী বাছাইয়ের নির্বাচনে ৫৬ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনি টেক্সাসের কংগ্রেসনাল ডিস্ট্রিক্ট-৩১ এর চূড়ান্ত প্রার্থী হিসেবে আবির্ভূত হয়েছেন।

আবুল বি খান : নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ পদে রিপাবলিকান দলের প্রাইমারি নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান আবুল বি খান। যুক্তরাষ্ট্রে দলীয় মনোনয়ন পেতে ভোটারদের সমর্থন প্রয়োজন হয়। এজন্য মূল নির্বাচনের আগে প্রতিটি দলের প্রাইমারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাধারণ ভোটাররা তাদের ভোট প্রয়োগ করেন।

নীনা আহমেদ : মার্কিন রাজনীতিতে বাংলাদেশি-আমেরিকানদের উত্থানের ক্ষেত্রে ড. নীনা আহমেদ একটি উজ্জ্বল নাম। এর আগে তিনি প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টা ছিলেন। ফিলাডেলফিয়ার ডেপুটি মেয়র নির্বাচিত হন।

শেখ রহমান চন্দন : জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের স্টেট সিনেটর পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন বাংলাদেশি-আমেরিকান শেখ রহমান চন্দন। ৯ জুন ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়ন পেতে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের নির্বাচনে সিনেট ডিস্ট্রিক্ট-৫ এ তার বিরুদ্ধে কেউ মাঠে নামেননি। এমনকি এ আসনে রিপাবলিকান পার্টি থেকেও কেউ প্রার্থী হননি।

১৯৮১ সালে উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে আসেন চন্দন। বাংলাদেশে তার ছোট ভাই শেখ মুজিবর রহমান ইকবাল কিশোরগঞ্জ থেকে একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য হন।

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ
DMCA.com Protection Status